সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন

ঘরে বসে অর্থ আয়ের মাধ্যম হিসেবে তরুণ প্রজন্মের কাছে আউটসোর্সিং দারুণ জনপ্রিয়। তবে আউটসোর্সিংয়ে আয়ের বিভিন্ন পন্থার মধ্যে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন [এসইও] শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে।

কম্পিউটার ইন্টারনেটের কল্যাণে প্রথাগত চাকরির ধরন পাল্টে যাচ্ছে! ধারণা করা হচ্ছে, আগামী দিনে প্রাতিষ্ঠানিক কাজও ভার্চুয়ালি সম্পন্ন হবে। পৃথিবীর যে কোনো প্রান্তে বসেই অফিসের সব ধরনের কাজই অনায়াসে সারা যাবে। তেমনি স্বাধীন পেশা হিসেবে আউটসোর্সিং নিয়েও আলোচনা হচ্ছে। আউটসোর্সিংয়ে জনপ্রিয় ধারণা হচ্ছে এসইও। যারা এ পেশার সঙ্গে জড়িত তাদের সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজার বলা হয়। বাংলাদেশেই হাজার হাজার তরুণ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজার প্রতি মাসেই শত শত ডলার আয় করছে। ইন্টারনেটে কাজের ক্ষেত্র হিসেবে পরিচিত ওডেক্স, ফ্রিল্যান্সারসহ জনপ্রিয় অনলাইন মার্কেটপ্লেসে বাংলাদেশি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজারদের বেশ জনপ্রিয়তা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ফলে পেশা হিসেবে এসইওকে বেছে নেওয়ার বিশাল ক্ষেত্র তৈরি হয়েছে।
এসইও কী :এসইও বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন হলো মূলত সার্চ ইঞ্জিনকে নিয়ে কাজ করা কিংবা অনলাইন মার্কেট করা। যখন কোনো বিষয়ে গুগলে সার্চ করা হয় তখন সে বিষয়ে হাজার হাজার ওয়েবসাইটের ঠিকানা আসে। তবে প্রথম পেজে ১০টি ওয়েবসাইটের ঠিকানা আসে। এই প্রথম পেজে নিজের ওয়েবসাইট প্রদর্শনে করণীয় পদ্ধটিই হচ্ছে এসইও। এক কথায়, সার্চ ইঞ্জিনে কোনো ওয়েবসাইটের প্রথম অবস্থানে আনার জন্য এবং সেই অবস্থান ধরে রাখার জন্য যা করা লাগে সেটিই এসইও। নতুন কোনো সাইটে ভিজিটর আনার অন্যতম উপায় হলো এসইও। এসইওকে প্রধানত দু’ভাগে ভাগ করা হয়। একটি অনপেজ অপটিমাইজেশন, অন্যটি অফপেজ অপটিমাইজেশন।
করণীয় :এসইও বিভিন্নভাবে করা যায়। প্রথমত, আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের সঙ্গে মিল রেখে উপযুক্ত কিওয়ার্ড সিলেক্ট করতে হবে। সব সার্চ ইঞ্জিনে সাইটকে সাবমিট করা। এ ছাড়া সার্চ ইঞ্জিন ফ্রেন্ডলি ইউআরএল ব্যবহার, সঠিক হেডিং ব্যবহার, ওয়েব ডিরেক্টরিগুলোতে সাইট সাবমিট করা, ম্যাস মেইলিং প্রসেস, ব্যাকলিংক তৈরি, উন্নত ও ইউনিক কনটেন্ট তৈরি, ধষঃ এট্রিবিউটের ব্যবহার, ৎড়নড়ঃ.ঃীঃ-এর ব্যবহার, সামাজিক যোগাযোগ সাইটে শেয়ারিং, ডেসক্রিপশন ট্যাগ, মেটা ট্যাগ, এক্সএমএল সাইট ম্যাপ তৈরি, ফোরাম পোস্টিং, আর্টিকেল সাবমিটিং, লিংকহুইল ইত্যাদি কাজ করতে হবে। এসবই আপনার সাইটকে গুগল র‌্যাংকিংয়ে ভালো অবস্থানে আনবে
যে কারণে এসইও :যারা ওয়েবউদ্যোক্তা বা ওয়েবমাস্টার হতে চান, তাদের এসইও শেখা অবশ্যই জরুরি। এ ছাড়া যারা সফল ফ্রিল্যান্সার হতে চান তারাও এসইও শিখে ফ্রিল্যান্সিং করে প্রতি মাসে ডলার আয় করতে পারেন। বিশেষ করে যাদের কম্পিউটারে সাধারণ জ্ঞান আছে এবং ইংরেজিতে লেখালেখি করতে পারেন তারা এ পেশা বেছে নিতে পারেন অনায়াসেই। অনলাইন মার্কেটপ্লেস ওডেস্ক ডটকম বা ফ্রিল্যান্সার ডটকমসহ জনপ্রিয় অনলাইন মার্কেটপ্লেসে প্রতি মুহূর্তে এসইও বিষয়ক শত শত প্রজেক্ট জমা হয়। বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সাররা এসইওতে দারুণ সফলতা দেখাচ্ছেন। অল্প সময়ে কাজ করে প্রচুর টাকা আয়ের অন্যতম উপায় হলো এসইও। আপনি যদি নিজের সাইটের জন্য এসইও করেন তাহলে এর মাধ্যমে অধিক ভিজিটর পাবেন। ভিজিটর বাড়লে ব্যবাসয়িক লাভ হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। অধিক ভিজিটরের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি, অ্যাফিলিয়েট বা অ্যাডসেন্স থেকেও আয়ের সুযোগ থাকে। শুধু মার্কেটপ্লেস নয়, লোকাল মার্কেট থেকে প্রতিনিয়ত কাজ পাওয়ার বহু সম্ভাবনা রয়েছে এসইওর ক্ষেত্রে।
যাদের জন্য উপযোগী :বড় বড় ডিগ্রি নিয়ে অনেকেই বসে আছেন কাজের সন্ধানে চাকরির জন্য। তবে তথ্যপ্রযুক্তির এ যুগে প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট কাজ জানলে বসে থাকার কোনো কারণ নেই। আপনি যা-ই পারেন না কেন, তা অনলাইনে করতে পারেন। যাদের কম্পিউটার সম্পর্কে সাধারণ ধারণা আছে, ইংরেজিতে মোটামুটি পারদর্শী, ইন্টারনেটের বিভিন্ন ওয়েবসাইট ভিজিট করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন, তারা সহজে এসইও শিখতে এবং পেশা হিসেবে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে কোনো প্রোাগ্রামিং ভাষা জানার দরকার নেই। অনপেজ অপটিমাইজেশনের জন্য নূ্যনতম কোডিং জ্ঞান থাকলেই হবে। সেটি আপনি প্রশিক্ষণ বা অনলাইনের বিভিন্ন রিসোর্স থেকে জেনে কিংবা শিখে নিতে পারবেন। তাই এ কাজ অতি সহজে রপ্ত করে দ্রুত কাজ শুরু করা যায়। প্রতিনিয়ত যেহেতু হাজার হাজার ওয়েবসাইট তৈরি হচ্ছে সেহেতু এসইও করার প্রয়োজন হয়। এ জন্য আগামীতেও এসইও কাজের প্রভাব থাকবে। তবে এ কাজে নূ্যনতম দক্ষতার পাশাপাশি আপনাকে কাজ শেখা, পরিশ্রম ও প্রচুর ধৈর্য থাকতে হবে।
কাজের ক্ষেত্র ও আয় : দক্ষ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজার হতে পারলে কাজের অভাব নেই। প্রাথমিকভাবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজার ওডেস্ক ডটকম, ফ্রিল্যান্সার ডটকম, গুরু ডটকম, ইল্যান্স ডটকমসহ অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে কাজ শুরু করতে পারেন। এসব সাইটে এসইও নিয়ে প্রচুর কাজ রয়েছে। ওডেস্ক ডটকমে প্রায় সব সময়ই এসইও বিষয়ে ৭ থেকে ৮ হাজারের অধিক কাজ থাকে। ফ্রিল্যান্সার ডটকমেও দুই সহস্রাধিক প্রজেক্ট রয়েছে। এগুলো ঘণ্টা চুক্তিতে বা নির্দিষ্ট পারিশ্রমিকে করা যায়। এ ছাড়া সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজারকে সম্ভব হলে লোকাল মার্কেটের কিছু কাজ করে নিজস্ব ব্র্যান্ডিং ভ্যালু বাড়ানো উচিত। প্রথম দিকের কাজগুলো ভালোভাবে সম্পন্ন করতে পারলে ক্লায়েন্ট খুশি হবে। এরপর তারা প্রয়োজনে আপনাকেই খুঁজে কাজ দেবে। অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে সাধারণত এসইওর যে কাজগুলো পাওয়া যায়, এর মধ্যে কোনো সাইটকে গুগলের এক নম্বর র‌্যাংকিংয়ে আনা, ফোরাম পোস্টিং, লিংক বিল্ডিং, সাইটের অনপেজ অপটিমাইজেশন, বুক মার্কিং উল্লেখযোগ্য। একটি সাইটকে গুগলের প্রথম পেজে আনতে সাইটের কিওয়ার্ডের ওপর নির্ভর করে সাধারণত ২০০ থেকে এক হাজার ডলার পর্যন্ত পাওয়া যায়। এ ছাড়া অন্যান্য কাজ করে ঘণ্টায় নূ্যনতম ২ থেকে ২০ ডলার পর্যন্ত আয় করা যেতে পারে। নির্দিষ্ট হারে ফোরাম পোস্টিং, লিংক বিল্ডিং, ব্যাক লিংক বা বুক মার্কিং করে ১০ থেকে ২০০ ডলার পাওয়া যেতে পারে। তবে এখানে মূলত আপনার কত সময় লাগবে এবং কোন কিওয়ার্ডের ওপর কাজ করতে হবে সেটির ওপর নির্ভর করে। সাধারণত দক্ষ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজার মাসে অনায়াসেই ২০ হাজার থেকে লক্ষাধিক টাকা আয় করতে পারেন।
প্রয়োজনে প্রশিক্ষণ :পেশা হিসেবে এসইওকে বেছে নিলে অবশ্যই এক্ষেত্রে ভালোভাবে দক্ষ হতে হবে। এজন্য প্রশিক্ষক হতে পারে গুগল সার্চ। এসইও লিখে সার্চ দিলে অসংখ্য টিপস/টিউটোরিয়াল হাজির হবে। মার্কেটপ্লেসগুলোতেও রয়েছে এসব বিষয়ে বিস্তর আলোচনা। বাংলা ও ইংরেজি বিভিন্ন ব্লগেরও সহায়তা নেওয়া যায়। অনলাইনে আয়ের বাংলা ব্লগ http://www.earntricks.com, http://www.webseoguide.net, http://www.techtunes.com.bd, http://www.techtweets.com.bd mn সহ বেশকিছু ব্লগ ও ওয়েবসাইট আছে। সেখানে বাংলাতে এসইও সম্পর্কিত লেখা নিয়মিত প্রকাশিত হয়। এর পাশাপাশি কোনো প্রতিষ্ঠান থেকে হাতে-কলমে শিখতে হবে। ভালোভাবে এসইও শিখে কাজ করতে নামলে সহজেই সফলতা পাওয়া সম্ভব। বাংলাদেশে ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান এসইও বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s